indobokep borneowebhosting video bokep indonesia videongentot bokeper entotin videomesum bokepindonesia informasiku videopornoindonesia bigohot

কাদিয়ানীদের সাথে বিতর্কসভার নীতিমালা

0

কাদিয়ানীদের সাথে বিতর্কসভার নীতিমাল

(ক) কুরআন শরীফ : কুরআন থেকে যেই আয়াত পেশ করা হবে সেটির অনুবাদ এবং ব্যাখ্যা মির্যার জন্মের-ও আগের ইসলামী ইতিহাসের গত তেরশত বছরের বরেণ্য মুজাদ্দিদ ও মুফাসসিরদের কিতাবের আলোকে দিতে হবে।

(খ) হাদীস শরীফ : আকীদাগত বিষয়ে দলিল হিসেবে উভয় পক্ষের পেশকৃত হাদীসগুলো অবশ্যই “সহীহ” হতে হবে। অন্ততপক্ষে “হাসান” পর্যায়ের হওয়া আবশ্যক। সনদের বিচারে কোনো প্রকারের দুর্বল (দ্বয়ীফ)/মাতরূক/মুনকার/শাজ ইত্যাদী পর্যায়ের কোনো রেওয়ায়েত গ্রহণযোগ্য হবেনা। সনদ বিশুদ্ধ হওয়া সত্ত্বে সাহাবায়ে কেরামের বক্তব্য-ও প্রমাণের সমর্থনে গ্রহনযোগ্য হবে।

(গ) ইজমা : ইজমা অর্থাৎ দ্বীনের কোনো আমল বা আক্বীদার ক্ষেত্রে উম্মতে মুহাম্মদিয়া’র সকলের সর্ব-সম্মত মত-ও অকাট্য দলিল হিসেবে গ্রহনযোগ্য হবে।

(ঘ) কিয়াস : শরীয়তের মৌলিক বিষয়ের উপর অনুমান করে শাখাগত বিষয়ে ফয়সাল হিসেবে উম্মতের সর্বজন স্বীকৃত যে সমস্ত মুজতাহিদ ইমাম প্রসিদ্ধি লাভ করেছেন তাদের স্ব স্ব মত-ও দলিল হিসেবে গ্রহনযোগ্য হবে।

(ঙ) মির্যা গোলাম আহমদ কাদিয়ানী সাহেবের স্বঘোষিত যে সমস্ত ইলহামী উক্তি রয়েছে সেগুলো-ও শুধুমাত্র উল্লিখিত দলিল-প্রমাণ গুলোর সমর্থনে গ্রহনযোগ্য হবে। উল্লেখ্য, মির্যার কোনো বক্তব্য-ই আমাদের জন্য শরয়ী দলিল হিসেবে গ্রহনযোগ্য নয়, বড়জোর সমর্থনে উল্লেখযোগ্য মাত্র।

লিখক প্রিন্সিপাল নূরুন্নবী

Share.

Leave A Reply

indobokep borneowebhosting video bokep indonesia videongentot bokeper entotin videomesum bokepindonesia informasiku videopornoindonesia bigohot